থাইল্যান্ডে পর্যটকবাহী নৌকা ডুবে নিহত ২৭ চীনা নাগরিক

ফুকেট দ্বীপের কাছে ঝড়ের কবলে পড়ে পর্যটকবাহী নৌকা ডুবে নিহত হয়েছেন ২৭ জন। নিখোঁজ রয়েছেন আরও ১৯ জন। ওই নৌকায় মোট ১০৫ জন যাত্রী ছিলেন।  এর মধ্যে  ৯৩ জন চীনের পর্যটক এবং বাকিরা থাইল্যান্ডের ক্রু ও টুরিস্ট গাইড ছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ওই নৌকাটি ডুবে যায়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, দেশটির নৌ বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আজ শুক্রবার উদ্ধার কাজের জন্য হেলিকপ্টার আনা হয়েছে। কয়েকটি মরদেহ ওই নৌকার মধ্যে থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ডুবুরিরা উদ্ধার কাজ করছেন।

ফুকেটের নৌ পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এই ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। ওই নৌকাটি সঠিকভাবে নিবন্ধিত এবং যাত্রার সময়ও ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি যাত্রী নেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ। উপকূলের সাত কিলোমিটার দূরে নৌকাটি ডুবে যায়।

এদিকে চীনের ব্যাংককের দূতাবাস থেকে এই ঘটনায় দ্রুত উদ্ধার কাজ করতে থাইল্যান্ড সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছে। এ ছাড়া ঘটনাস্থলে একটি উদ্ধারকারী দল পাঠাতেও অনুরোধ করেছে দূতাবাসটি।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কাং এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং এই ঘটনার ওপর গভীর দৃষ্টি রাখছেন। সেই সঙ্গে উদ্ধার তৎপরতায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানান ওই মুখপাত্র।

থাইল্যান্ডের সড়ক  ও নৌ পথে নিরাপত্তা নিয়ে অনেক পর্যটক সংস্থা আপত্তি জানিয়েছে। তাদের অভিযোগ, গাড়িতে সিট বেল্ট না থাকা এবং নৌকায় জীবন রক্ষাকারী জ্যাকেট না থাকার বিষয়গুলোতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি।

Leave a Reply

Top