টানা বর্ষনে উত্তরাঞ্চলের জীবনযাত্রা ব্যাহত

উত্তরাঞ্চলে ৪ দিনের টানা বৃষ্টিতে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হয়ে পড়েছে। টানা বর্ষণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। বর্ষনের কারনে গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে বেশিরভাগ মানুষ। এছাড়াও বৃষ্টির কারনে দিনমজুরেরা কাজে যেতে পারছেনা। ফলে অর্থনৈতিক সংকট দেখা দিয়েছে শ্রমজীবীদের মাঝে। অর্ধাহারে অনাহারে তারা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর দিন কাটাচ্ছে ।

এদিকে টানা বৃষ্টিতে আগাম বন্যার প্রাদুর্ভাব দেখা গেছে নিচু জায়গা গুলোতে। পানিবন্দি হয়ে পরেছে হাজারো মানুষ। শিশু সন্তানদের প্রাণহানির আশংকায় দিন কাটছে তাদের। দিন আনে দিন খায় প্রকৃতির মানুষেরা পরেছে মহা বিপদে। একজন শ্রমজীবী জানায়, কাম নাই কাজ নাই ঘরে খাওয়ার কিছু নাই, ক্ষুধার্ত সন্তানদের মুখে আহার তুলে দেওয়ার জন্য সুদে করে এক হাজার টাকা নিয়া চলতেছি। এই রকম বৃষ্টি যদি আর দুই চাইর দিন থাকে তাইলে চুরি করা ছাড়া বাঁচা জাইবো না।

এছাড়া টানা বর্ষণে শিক্ষা ক্ষেত্রেও দেখা গেছে স্থবিরতা। কোমলমতি শিশু সন্তানদের স্কুলে পাঠাতে পারছেনা অভিভাবকরা। স্কুল কলেজেও নির্ধারিত সময়ের অনেক আগেই ছুটি দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। বেশির ভাগ সময়ই শিশুদের বৃষ্টিতে ভিজেই বাড়ির পথে ফিরতে হচ্ছে। এ কারণে শিশুদের মাঝে রোগ ব্যাধির প্রাদুর্ভাব বাড়ার আশংকা থাকে।

এদিকে টানা বৃষ্টির কারণে কমে গেছে শাহজাদপুরের বিখ্যাত কাপড়ের হাটের ক্রয় বিক্রি। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ক্রেতাদের পদচারণায় হাট প্রাঙ্গণ থাকে সরগম সেখানে এখন বিরাজ করছে নিরবতা। বিক্রেতারা শাড়ি ও লুঙ্গির পশরা সাজিয়ে বসতে পারছেনা। আশংকা করা হচ্ছে যে, এ রকম বৃষ্টি যদি আরো কয়েকদিন থাকে তাহলে নিরব মানবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে হবে এ অঞ্চলের মানুষের।

Leave a Reply

Top